ঈসা (আঃ) এর আগমন ও আসমানে তুলে নেয়ার ঘটনা কুরআন থেকে।

আমরা সকলেই অবগত আছি যে ঈসা (আঃ) কে আসমানে তুলে নেওয়া হয়েছে। আর তিনি আবার পৃথিবীতে আসবেন। আর এই কথা বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে আমরা সকলে ছোট বয়েস থেকে সুনে আসছি। কিন্ত আজ আমরা ঈসা (আঃ) এর আগমন সম্পর্কে, ঈসা (আঃ) এর মুখ থেকে জানবো তিনি কি বলে এই সম্পর্কে। কিন্ত এই কথা গুলি আমাদের যাদু মনে হবে, এর পরও আমাদের বিশ্বাস করতে হবে।

ঈসা (আঃ) এর আগমন ও আসমানে তুলে নেয়ার ঘটনা কুরআন থেকে।

ঈসা (আঃ) এর আগমন সম্পর্কে ঈসা (আঃ) কি বলে।

৬১-৬) স্মরণ কর, যখন মারইয়ামের পুত্র ‘ঈসা বলেছিল, ‘হে বানী ইসরাঈল! আমি তোমাদের প্রতি আল্লাহর রসূল, আমার পূর্ববর্তী তাওরাতের আমি সত্যায়নকারী এবং আমি একজন রসূলের সুসংবাদদাতা যিনি আমার পরে আসবেন, যার নাম আহমাদ।’ অতঃপর সে যখন তাদের কাছে সুস্পষ্ট নিদর্শন নিয়ে আসল, তখন তারা বলল, ‘এটা তো স্পষ্ট যাদু।’

আমরা মানুষের মুখে সুনে আসছি যে ঈসা (আঃ) পুনরাই পৃথিবীতে আগমন করবে। কিন্ত এই আয়াতে ঈসা (আঃ) নিজে মুখে বলছে যে আমার পর আহাম্মাদ নামে এক রসূল পৃথিবীতে আগমন করবে।

যদি তর্কের খাতিরে ধরে নিয় যে ঈসা (আঃ) আবার আগমন করবে। তাহলে উপরের আয়াত অনুযায়ী পুনরায় আহাম্মাদ নামে এক রসূলের আগমন ঘটবে। কারণ এই আয়াত কিয়ামত পর্যন্ত পরিবর্তন হবে না।

এবার এই কথার পরিপেখিতে কিছু আলেম বলবে যে তিনি ঈসা (আঃ) নবী হয়ে আসবে না। ভালো কথা। কিন্ত ঈসা (আঃ) নিজেকে ঈসা ইবনে মারিয়াম বলে যখন পরিচয় দেবে। তখন কুরআনের অসংখ্য আয়াত ঈসা (আঃ) কে এক সন্মানিত নবী ও রাসুল বলে প্রমাণ করবে। 

তাই ঈসা (আঃ) পুনরাই আগমন করলে, উনার মৃত্যুর পর  আহাম্মাদ নামে এক রসূলের আগমন ঘটবে। আর তা না হলে কুরআন মিথ্যা বলে প্রমাণ হয়ে যাবে। আর তা কোন দিন সম্ভাব না কারণ আহাম্মাদ নামে এক রসূলের আগমন হয়ে গিয়েছে।

আসমানে তুলে নেয়ার ঘটনা কুরআন।

اِذۡ قَالَ اللّٰهُ یٰعِیۡسٰۤی اِنِّیۡ مُتَوَفِّیۡکَ وَ رَافِعُکَ اِلَیَّ وَ مُطَهِّرُکَ مِنَ الَّذِیۡنَ کَفَرُوۡا وَ جَاعِلُ الَّذِیۡنَ اتَّبَعُوۡکَ فَوۡقَ الَّذِیۡنَ کَفَرُوۡۤا اِلٰی یَوۡمِ الۡقِیٰمَۃِ ۚ ثُمَّ اِلَیَّ مَرۡجِعُکُمۡ فَاَحۡکُمُ بَیۡنَکُمۡ فِیۡمَا کُنۡتُمۡ فِیۡهِ تَخۡتَلِفُوۡنَ

৩-৫৫ স্মরণ কর, যখন আল্লাহ বললেন, ‘হে ঈসা, নিশ্চয় আমি তোমার নাফস্কে পূর্ণ করব(অর্থাৎ তমাকে মৃত্যু দেব), তোমাকে আমার দিকে উঠিয়ে নেব এবং কাফিরদের থেকে তোমাকে পবিত্র করব। আর যারা তোমার আনুগত্য করেছে তাদেরকে কিয়ামত পর্যন্ত অবিশ্বাসীদের উপরে প্রাধান্য দেব। অতঃপর আমার নিকটই তোমাদের প্রত্যাবর্তন হবে। তখন আমি তোমাদের মধ্যে মীমাংসা করে দেব, যে ব্যাপারে তোমরা মতবিরোধ করতে’ ।

ঈসা (আঃ) কে মৃত্যু দেওয়ার পর কাফিরদের থেকে উনার লাস কে পবিত্র রাখার জন্য আল্লাহ্‌ উনার লাস কে উপরে উঠিয়ে লিয়েছেন।

কুরআন থেকে আরও পড়ুন।

কোন মন্তব্য নেই: